আর্থিক দিকটা ভাবা কি অন্যায়?- প্রশ্ন ছুৃঁড়েছেন সাকিব

তিন ম্যাচ করে ওয়ানডে এবং টি-টুয়ান্টি খেলতে নিউজিল্যান্ডে সফরে গেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। আগেই সিরিজ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান৷ গত দুদিন আগে একটি অনলাইন পোর্টালে লাইভে এসে সাকিব জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের কিছু অজানা তথ্য, ছুঁড়েছেন বেশ কিছু প্রশ্নও।

সাকিবের সাক্ষাৎকার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ শোরগোল ফেলেছে৷ তার কথা শুনে নড়েচড়ে বসেছে বিসিবিও। এখন মাঠের ক্রিকেট থেকে মাঠের বাইরের বাংলাদেশ ক্রিকেট বেশ উত্তপ্ত ।

গতকাল সাকিব আল হাসান বাংলাদেশ ক্রীড়া সাংবাদিকতা জগতের একজন স্বনামধন্য সাংবাদিক উৎপল শুভ্রর নিজস্ব অনলাইন পোর্টাল “উৎপলশুভ্রডটকম” কে দেয়া আরেকটি সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন শ্রীলঙ্কা সফরে কেন তিনি টেস্ট সিরিজের ম্যাচ না খেলে আইপিএল খেলতে আগ্রহী।

আইপিএলের জন্য শ্রীলঙ্কা সফরে খেলতে না যাওয়া প্রসঙ্গে সাকিব বলেন, “যাঁরা সমালোচনা করছে, তাঁদের জায়গা থেকে ঠিকই আছে। কিন্তু একটু চিন্তা করলে তাঁরাও বুঝতে পারবে, আমি কেন আইপিএলে খেলতে চাইছি। প্রথমত, শ্রীলঙ্কা ট্যুরটা এই সময়ে ছিল না। তাছাড়া দেখেন, আমরা এখন টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ টেবিলের সবার শেষে আছি। শ্রীলঙ্কার মাটিতে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে খেলা। হয়তো আমরা একটা টেস্ট জিতব, একটা হারব। তাতে কী হবে, ৭/৮ নম্বরে উঠতে পারব বলে তো মনে হয় না। আর আইপিএলে আমি যে মাঠগুলোতে খেলব, কয়েক মাস পর সেই মাঠগুলোতেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের খেলাও হবে। আমি তো আমার এই অভিজ্ঞতা দলের অন্যদের সঙ্গেও শেয়ার করতে পারব। বাংলাদেশের আর কেউ তো আইপিএলে নাই। আরেকটা জিনিস দেখেন, আমি যে কেকেআরে খেলব, সেই দলের অনেকেই বিশ্বকাপে বিভিন্ন দলে খেলবে। আমি তো ওদের উইকনেসের জায়গাগুলোও জানতে পারব। যা বিশ্বকাপে কাজে লাগবে। ড্রেসিংরুমে তো এসব আলাপ হবেই–আমার এটাতে সমস্যা হচ্ছে, ওটাতে সমস্যা হচ্ছে। আইপিএলের তিন/চার মাস পরই তো ওয়ার্ল্ড কাপ। আমি তো জানব, কিছুদিন আগেই কোন প্লেয়ারের মাইন্ডসেট কেমন ছিল। অন্যদের সঙ্গে শেয়ারও করতে পারব।”

উৎপল শুভ্র প্রশ্ন ছুঁড়েন যেহেতু সাকিব এর আগেও ভারতে খেলেছেন এবং অনেক বড় মাপের খেলোয়ারদের সাথেও তার খেলার অভিজ্ঞতা আছে সুতরাং তাদের দুর্বলতা তার জানারই কথা। নতুন করে জানতে হবে কেন?

জবাবে সাকিব আরো জানান, “কী বলেন! একটা প্লেয়ারের খেলা প্রতিনিয়ত চেঞ্জ হয়। ইমপ্রুভ যেমন করে, নতুন নতুন সমস্যাও হয়। আপনার লেখার পরিবর্তন আসে নাই? বিশ বছর আগে যেভাবে লিখতেন, এখনো কি সেভাবেই লেখেন? তা লিখলে পাবলিক খাবে? সময়ের সঙ্গে সবকিছুই বদলাতে হয়। দেখেন, ইন্ডিয়া আইপিএল থেকে কত প্লেয়ার বের করেছে। ওরা টেস্টেও ভালো করছে। এই যে ঋষভ পন্ত, ও কোত্থেকে উঠে এসেছে? এ জন্যই আমি বলি, বিপিএলটা ভালো করে করতে। আইপিএল-বিপিএল সবাই দেখে, প্রেশার থাকে। বড় বড় প্লেয়ারদের সঙ্গে ড্রেসিংরুম শেয়ার করা যায়। এসবে সাহসটা বেড়ে যায়।”

ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট মানেই টাকার উৎসব। সাকিব কি আইপিএলে টাকার জন্য খেলছেন? – এমন প্রশ্নও উঠেছে ক্রিকেট পাড়ায়।

সাকিব এ প্রসঙ্গে আরো জানান, “হ্যাঁ, টাকাটাও একটা ফ্যাক্টর। আমার কথাই বলি। বয়স ৩৪ হয়ে গেছে। সবকিছু ঠিক থাকলে বড়জোর আর তিন/চার বছর খেলতে পারব। দুই বছরও হতে পারে। কপাল খারাপ থাকলে এক বছর। আর্থিক দিকটা ভাবা কি অন্যায়?

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles