স্পিন ঘূর্ণিতে ১-০ তে সিরিজ জয় শ্রীলঙ্কার;২য় টেস্টে ব্যাটম্যানদের অসহায় আত্মসমর্পণ!

শাহ আলম হৃদয়

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে আয়োজিত বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা দুই টেস্ট সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে থেকে শ্রীলঙ্কার সিরিজ জয়।ক্যান্ডির পাল্লেকেলে ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে ২১-২৫ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হওয়া ১ম টেস্টে দুইদলের স্বতঃস্ফূর্ত ব্যাটিংয়ে ড্রতে সমাপ্ত হলেও ২৯ এপ্রিল-৩ মে অনুষ্ঠিত হওয়া ২য় ও শেষ টেস্টে দৃষ্টিনন্দন স্পিন ঘূর্ণিতে ৫ম দিনে এসে বাংলাদেশকে ২০৯ রানের বড় ব্যাবধানে হারায় লঙ্কানরা।
ফলে ১-০ তে সিরিজ জয় পায় স্বাগতিকরা।

১ম টেস্টে ব্যাটিং সহায়ক উইকেট থাকায় রান বন্যা হলেও দ্বিতীয় টেস্টে ২য় দিন থেকেই হঠাৎ করেই পরিবর্তন হতে থাকে উইকেটের চরিত্র।২য় টেস্টে ১ম দিনে শ্রীলঙ্কা মাত্র ১ টি উইকেট হারিয়ে ২৯১ সহ প্রথম ইনিংসে মোট ৪৯৩ করে ইনিংস ঘোষণা করে।

তারপর থেকেই যত বিপত্তি!
৩য় দিনে বাংলাদেশের ইনিংস শুধু হওয়ার পরথেকেই কোনোরকম পূর্বাবাস ছাড়াই যেনো ঘূর্ণিঝড় এলো।হঠাৎ করেই পাল্লেকেলের উইকেটের চেহারা পরিবর্তন হয়ে স্পিন বান্ধব উইকেট হয়ে যেনো পরিণত হলো ২য় মিরপুর।অভিষিক্ত প্রভিন জয়াক্রমার স্পিন ভেলকি যেনো মূহুর্তের জন্য মনে করিয়ে দিচ্ছিল শ্রীলঙ্কান স্পিন কিংবদন্তি মুরালিধরনের কথা।শুধু প্রভিনই নয়,জীবন মেন্ডিসের বল ও যেনো রুপ নিয়ে ছিলো এক একটা আগ্নেয়গিরি।যার ফলস্বরূপ ২য় টেস্টে অভিষিক্ত প্রভিন বহু রেকর্ডবুকে নামের পাশাপাশি দুই ইনিংস মিলিয়ে ১১ টি উইকেট নেন। জীবন মেন্ডিস ও নেন ৬ টি উইকেট।

২য় টেস্টে লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুণারাত্নে দুই ইনিংস খেলে সর্বোচ্চ ১৮৪ রান সংগ্রহ করেন।এছাড়া ও দুই টেস্ট মিলে তিন ইনিংসে ১ টি করে ডাবল সেঞ্চুরি, সেঞ্চুরি ও হাফ সেঞ্চুরি সহকারে সর্বোচ্চ ৪২৮ রান করে সিরজ সেরা হন প্রথম টেস্টের ম্যাচ সেরা হওয়া লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুণারাত্নে।

২য় টেস্টে দুই ইনিংস মিলে ১১৬ রান ও ১ম টেস্টে আরো ২টি অর্ধশতক সহকারে বাংলাদেশের হয়ে ২য় টেস্ট ও সিরিজে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ওপেনার তামিম ইকবাল। ২য় টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে ক্রমান্বয়ে ৬ টি ও ৫ টি উইকেট নেন তাইজুল ইসলাম ও তাসকিন আহমেদ।শ্রীলঙ্কানদের ব্যাট থেকে সিরিজে মোট একটি ডাবল সেঞ্চুরি ও ৩ টি সেঞ্চুরির দেখা মিললেও বাংলাদেশিদের মধ্যে সিরিজে ১ম টেস্টেই শান্ত ও মুমিনুল পান ১ টি করে শতকের দেখা,২য় টেস্টে দলকে থাকতে হয় শতক শূন্য।

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ইতিমধ্যে ফাইনালের দুদল নিশ্চিত হলেও এই সিরিজে এসে ড্রয়ের মাধ্যমেই খুললো বাংলাদেশের পয়েন্টের খাতা, “এ যেন মন্দের ভালো”।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles