১ম দিনশেষে শান্ত-তামিমদের দূরন্ত ব্যাটে উড়ন্ত শুরু টাইগারদের!

শাহ আলম হৃদয়

দিমুথ করুণারাত্নে যখন মুমিনুল হকের সাথে টসে হারেন তখন হয়ত চিন্তাও করেন নি সারাদিন শান্ত – তামিমরা শাসন করবে শ্রীলঙ্কান বোলারদের।

ক্যান্ডিতে প্রথম টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম দিন শেষে ৯০ ওভারে মাত্র দুটি উইকেটের বিনিময়ে ৩০২ রান সংগ্রহ করে টিম বাংলাদেশ।টসে জিতে তামিম-সাইফ ব্যাটিং এ নামলে ও শুরুতেই দলীয় ১৫ রান হতে না হতেই ফারনেন্দুর বলে শূন্য রানে সাজঘরে ফিরেন সাইফ হাসান।বাংলাদেশি ক্রিকেট প্রেমিরা তখন হয়ত ভেবে নিয়েছিলেন সাম্প্রতিক টেস্ট সিরিজগুলোর ধারাবাহিক পারফরম্যান্সই করতে যাচ্ছেন তারা।
কিন্তু না!
তামিমের মারকুটে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি নাজমুল হোসেনের রক্ষণশীল ব্যাটিংয়ে খুব তাড়াতাড়িই রিকভার করে বাংলাদেশ।মাত্র ৫৩ বলে ওয়ানডে মেজাজে ব্যাক্তিগত ২৯ তম অর্ধশতক তুলে নেন তামিম ইকবাল। অপরপাশে নাজমুলের শান্ত মেজাজের ধৈর্যশীল ব্যাটিংয়ে ১ উইকেট হারিয়ে ২৭ ওভারে ১০৬ রান করে ১ম সেশন শেষ করে বাংলাদেশ।

মধ্যাহ্নভোজের বিরতির পর ধারাবাহিক ভাবেই খেলছিলেন তামিম-শান্ত।হঠাৎ করেই তামিম ইকবাল ফারনেন্দুর বলে স্লিপে সহজ ক্যাচ দিয়ে ৯০ রান করে ফিরেন শতক মিস করা তামিম ইকবাল।তারপর হতে আর পিছনে তাকাতে হয় নি বাংলাদেশের।অধিনায়ক মমিনুল কে সাথে নিয়ে শান্ত নিজের ২য় অর্ধশতক করেন।শান্ত ব্যাক্তিগত ৭৮ ও মমিনুল হক ২১ রান করে ৫৩ ওভারে দলীয় ২০০ রান করে চা বিরতিতে যান তারা।

১ম ও ২য় সেশনে একটি করে উইকেট পড়লেও ৩য় সেশনে আর কোনো উইকেটের দেখা পান নি শ্রীলঙ্কান বোলাররা।এর মধ্যে মমিনুল হক ১৪ তম অর্ধশতকের পাশাপাশি অসাধারণভাবে টেস্ট গতিতে ব্যাটিং করে নাজমুল হোসেন শান্ত তার অর্ধশতক কে অভিষেক শতকে রুপান্তরিত করেন।এভাবেই ১৫০ বল খেলে অধিনায়ক মমিনুল ৬৪ ও শান্ত ২৮৮ বল মোকাবিলা করে ১২৬ রান করে একটি সফল দিন শেষ করে টাইগাররা।

পক্ষান্তরে শ্রীলঙ্কানদের একমাত্র অর্জন হিসেবে বিসফা ফার্নেন্দোর ২ টি উইকেট নিয়েই দিনশেষ করতে হয়।

নাজমুল শতককে ডাবল ও মমিনুল অর্ধশতককে শতকে রুপান্তর করতে পারবে কি??
দেখার অপেক্ষায় থাকবে ক্রিকেট প্রেমীরা।

Related Articles

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles