৪র্থ দিনশেষে বাংলাদেশকে জিততে হলে ঘটতে হবে মিরাকল!

শাহ আলম হৃদয়

ক্যান্ডিতে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ২য় ম্যাচে ১ম ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যর্থতার পাশাপাশি ৪র্থ দিনেও ২য় ইনিংসে বড় টার্গেটে খেলতে নেমে অনেকটা অপদস্ত তামিমরা।দুই সেশন মিলে ৪৮ ওভার ব্যাট করে গুরুত্বপূর্ণ ৫ টি উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করেন ১৭৭ রান।ম্যাচ জয়ের জন্য প্রয়োজন ৫ম দিনে বাংলাদেশের আরো ২৬০ রান।হাতে উইকেট রয়েছে ৫ টি, যার মধ্যে ৩ জনই বোলার।বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৪০ রান করে রমেশের বলে আউট হন মুশফিক।লিটন ১৪ ও মেহেদী ৪ রান করে অপরাজিত আছেন।

১ম ইনিংসের মতো আবারো শ্রীলঙ্কান স্পিনার রমেশ ও প্রভিনের কাছেই বাংলাদেশিদের অসহায় আত্মসমর্পণ।২য় ইনিংসেও প্রভিন ও রমেশ নেন ক্রমান্বয়ে ৩ টি ও ২ টি করে উইকেট।

এর আগে ২য় টেস্টের ২য় ইনিংসে ওয়ানডে গতিতে মাত্র ৪২.২ ওভার ব্যাট করে ৯ উইকেটে ১৯৪ রানে ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলঙ্কা।আগের ২৪২ রানে লিড সহ সর্বমোট বাংলাদেশকে এই ম্যাচ জিততে দুইদিনে প্রায় ১৫০ ওভারে করতে হবে ৪৩৭ রান।যা ২য় ইনিংস হিসেবে টার্গেট ভেদ করা অনেকটা দুঃসাহসিক।

৩য় দিনে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা থেকে ২৪২ রানে পিছিয়ে থেকেই মাত্র ২৫১ রানে ১ম ইনিংসে অলআউট হয়।আর এই সুবিধাটা কাজে লাগিয়ে লঙ্কানরা গতকালের ১৭ রান সহ ২য় ইনিংসে আরো যুক্ত করেন ১৯৪ রান।এই রান তাড়া করে ম্যাচ জিততে বা ম্যাচ ড্র করতে হলে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের ধৈর্যের পরিচয়ের পাশাপাশি লক্ষ্যনীয় ব্যাটিং উপহার দিতে হবে দল কে।

৪র্থ দিনে ১৭ রান নিয়ে মাঠে নেমে শ্রীলঙ্কা ২য় সেশনের শুরুতেই ১৯৪ রানে তাদের ২য় ইনিংস ঘোষণা করে।শ্রীলঙ্কার হয়ে ৬৬ রানের সর্বোচ্চ ইনিংস খেলেন অধিনায়ক করুনারাত্নে।অপরদিকে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ৫ টি উইকেট শিকার করেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। তাসকিন আহমেদের ১ টি উইকেট ব্যাতিত বাকি ৮ টি উইকেটর পতন ঘটে স্পিনার আঘাতে।

চাপ নিতে পারবে কি মেহেদী -লিটন??
নাকি ১ম সেশনেই ঘটতে পারে সূচনীয় পরাজয়!

সংক্ষিপ্ত স্কোর :
শ্রীলঙ্কা:- ৪৯৩/৭(ডি) ও ১৯৪/৯(ডি)
বাংলাদেশ :- ২৫১/১০ ও ১৭৭/৫(৪৮)

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles