তবে কি ছিনিয়ে নেয়া হয়েছিলো মুশফিকের কাপ্তানি!

সাকিব আল হাসান, নামটার সাথে অন্য যাহাই যাক কিংবা আসুক। খেলা নিয়ে ছাড় দেয়া কথাটা যেন মানানসই হয় না হওয়ার না। কেননা তিনি যে একজনই, বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। কিন্তু সেটাই যেন ঘটে চলেছে এই নামের সাথে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের ভাষ্যমতে গত ৩ বছর যাবৎ ই টেস্ট ক্রিকেটের প্রতি অনিহা প্রকাশ করে আসছিলেন সাকিব আল হাসান। শেষবার ২০১৭ সালের দক্ষিণ আফ্রিকাতে বাজে ভাবে টেস্ট হারের সময়ও ছিলেন না সাকিব। সেবার এবং শেষ বার সাদা পোশাকে দলের নেতৃত্বে ছিলেন মি. ডিপেন্ডেবল ক্ষেত মুশফিকুর রহিম।

সাকিবের টেস্ট ক্রিকেটে অনিহা আর বাংলাদেশের বাজে হারের পর একরকম জুড় করেই মুশফিকের থেকে কাপ্তানি ছিনিয়ে নিয়ে দেয়া হয় সাকিব আল হাসানকে। যেন অন্ততঃ কাপ্তানি নিয়ে হলেও টেস্ট ক্রিকেটে সার্ভিস দেন বাংলার জান, বাংলার প্রান।কিন্তু তাতেও যেন রক্ষে হচ্ছে না সাকিবের টেস্ট ক্রিকেটে থাকার বিষয়ের জটলা। সেবার মুশফিকের নের্তৃত্ব কেড়ে নেয়ার বিষয়ে ক্রিকেট ভক্ত কূল কিছুটা আচ করতে পারলেও এবার তা পরিষ্কার করে জানান দিলেন বিসিবি বস।

বিসিবি সভাপতি বলেন “ও তো এমনিতেই টেস্টের প্রতি ইচ্ছে প্রকাশ করে নাই। ও তো চাচ্ছিল না খেলতে, তখন তো তাকে ক্যাপ্টেন করে দেওয়া হলো। জোর করে তাকে খেলানোর তো চেষ্টা করলাম। আসলে জোর করে খেলানোর কোন মানে নেই। আমার কাছে মনে হয়েছে, আমরা ভবিষ্যতের দিকে আগাতে পারছি না, পেছনের দিকে যাচ্ছি। কাজেই আর কাউকে জোর করব না। আমরা যদি জানি এই কয়টা প্লেয়ার টেস্ট খেলতে চায় না, তখন তো তাদের বিকল্প নিয়ে চিন্তা করতেই হবে আমাদের। হয়ত সময় লাগবে, লাগুক। কিন্তু ভবিষ্যতের জন্য আমরা পাব”

ক্রিকেটারদের খেলার ব্যপারে কাউকেই আর জুড় করা হবে না। তবে কেন্দ্রীয় চুক্তিও হবে সেই অঅনুসারেই। কাউকে জুড় করে খেলানো এবং পরবর্তীতে তার নেগেটিভ ফল আসা এসব বিষয়ে একেবারেই সন্তুষ্ট নন বিসিবি সভাপতি।
এ যাত্রায় সাকিবকেও জুড় করে খেলানো যেত, কিন্তু তা করবেন বলে বিসিবি সভাপতি আরও বলেন,

“সাকিবকে কী জোর করে খেলানো যেত না? ওকে অনুমতি না দিলে কী করত? হয়ত খেলত। কিন্তু আমরা সেটা চাই না। আমরা চাই যারা এই ফরম্যাটটাকে (টেস্ট) ভালোবাসে সেই খেলুক, জোর করে আমি খেলাতে চাই না। সে তো আরও তিন বছর আগেই টেস্ট খেলতে খেলতে চায় নাই।””

ক্রিক ডাগআউট

Related Articles

1 COMMENT

  1. এতদিনের আন্দাজ এখন ক্লিয়ার🙂 বাট এত কিছু করে ও কি লাভ হলো🙂

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles