কোন কিছুতেই বাধা নেই ড্যানের…

বিশ্ব জুড়ে অনুষ্ঠিত হওয়া টি-টোয়ান্টি লীগ গুলোর কারনে জাতীয় দলের বাইরে থেকেও নিয়মিত ক্রিকেটপ্রেমীদের নজরে থাকেন কয়েকজন তারকা। এতে করে যেমন ক্রিকেটপ্রেমীরা তাদের প্রিয় তারকার খেলা উপভোগ করতে পারেন তেমনি তারকাদেরও আর্থিক দিকের কথা ভাবতে হয় না। কোভিড-১৯ এর ছোবলে আবারো লীগ গুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ায় মন খারাপ সবার। এদিকে খেলোয়ার ও সময় কাটাচ্ছেন ক্রিকেটের বাইরে নানা বিষয়ে কথা বলে। এবার কথা বলেছেন অজি তারকা ড্যানিয়েল ক্রিশ্চিয়ান। ভক্তদের কাছে প্রকাশ করেছেন তার খাবার নিয়ে চিন্তা ভাবনা।

এক সাক্ষাতকারে ড্যানের বলা খাবারের প্রতি আগ্রহ নিয়ে আলোচনা- সমালোচনা দুটোই হচ্ছে। টি-টোয়ান্টি ক্রিকেট মাতানো এ তারকা গত চার বছরে খেলেননি কোন প্রথম শ্রেনীর ম্যাচ। তার ফিটনেস নিয়েও আছে নানা প্রশ্ন। তবে চার দিনের ম্যাচ গুলোর মধ্যাহ্ন বিরতিগুলো মিস করেন ড্যান।

সাক্ষাতকারে অকপটেই স্বীকার করেছেন অনেক কথা। ম্যাচের আগে কখনোই তেমন কিছু খান না তিনি। তবে ম্যাচ শেষ হওয়ার পর হাতের সামনে যা পান তাই খেয়ে নেন ড্যান। বেশি খেয়ে ফেলার কারনে বেশ ভুগতেও হয় তাকে। প্রিয় খাবারের তালিকায় এগিয়ে রেখেছেন স্টেক আর চিপ্স। তবে সবচেয়ে বেশি খেয়ে থাকেন ডিম। খাবারের জন্য অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে পছন্দ সিডনি আর মেলবোর্ন। খাবারের বৈচিত্র থাকায় এ দুই শহরে খেতে খুব পছন্দ করেন ড্যান। খাবারের বৈচিত্রের জন্য অস্ট্রেলিয়ার বাইরে পছন্দের শহর লন্ডন।

শিরোপা উদযাপনে সব সময় কোল্ড ড্রিংক্স চান ড্যান। যে কোন ধরনের কোল্ড ড্রিংক্স তার উদযাপনকে পরিপূর্ণ করে বলে জানান তিনি। অস্ট্রেলিয়া দলের মধ্যে সেরা রাধুনীর কথা জিজ্ঞেস করায় ড্যান দিয়েছেন ভিন্ন উত্তর। সবার জানা আছে এ বিষয়ে ম্যাথু হেইডেনের কোন প্রতিদ্বন্দী নেই। এমনকি নিজের রচনা করা রান্নার বই ও আছে তার। কিন্তু ড্যান বলেছেন ক্যামেরন হোয়াইটের কথা। হোয়াইটের করা মাছের ডিশ পছন্দ করেন ড্যান।

খাবারের তালিকায় পরিবর্তন আনতে যেমন পছন্দ করেন তেমনি পরিবর্তন আনতে চাচ্ছেন খেলার ধরনেও। সম্প্রতি চার দিনের ম্যাচের প্রতি আগ্রহ দেখিয়েছেন ড্যানিয়েল। আশা করি ভক্তরা দ্রুতই খেলার মাঠে দেখতে পাবেন তাকে।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles