কোয়ারেন্টিনে অনুশীলন সুবিধা পাচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে নতুন বছরের প্রথম মাসেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরছে টাইগাররা। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের সাথে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলার সব আয়োজন ইতিমধ্যেই সম্পন্ন। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য কোয়ারেন্টিনের কঠিন নিয়ম রাখছে না বাংলাদেশ। বাংলাদেশে পৌঁছানোর পর সাত দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে ক্যারিবিয়ানদের।

সবচে বড় সুবিধা হলো ৭ দিনের মধ্যে ৩ দিন থাকতে হবে হোটেল কক্ষে। এরপর কোয়ারেন্টিনে থেকে অনুশীলন সুবিধা পাবেন তারা।

চলমান এই মহামারীতে জৈব নিরাপত্তা নিশ্চিত করে তবেই মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ। সার্বিক স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে গত শনিবার ঢাকায় আসে ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই সদস্যের প্রতিনিধি দল। ঢাকা ও চট্টগ্রামে এই দুই ভেন্যুতে খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এই দুই ভেনুতে হোটেল, হাসপাতাল, প্রস্তুতি ম্যাচের সম্ভাব্য ভেন্যু বিকেএসপিসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য জায়গা গত কয়েক দিনে ঘুরে দেখেন তারা।

জৈব নিরাপত্তা বলয় পরিদর্শন করে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরিচালক আকশাই মানসিং।

“সময় বদলাতে শুরু করেছে। সবাই এখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে আগ্রহী। আগামী বছরের শুরুতে বাংলাদেশ সফর সম্ভব কিনা, সেটি দেখতেই আমরা এখানে এসেছি। বলতেই হবে, বিসিবি যে প্রটোকলের কথা আমাদের জানিয়েছে, তা খুবই সুবিবেচিত। ঢাকা ও চট্টগ্রামে যা দেখেছি, আমরা তাতে খুশি। আমাদের পর্যবেক্ষণ আমরা ক্রিকেট ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরিচালকদের জানাব। এখানে যে ব্যবস্থাপনা আমরা দেখেছি, তা বিশ্বের যে কোনো জায়গার মতোই ভালো বলে বিশ্বাস আমার।”

কোয়ারেন্টিনের সম্ভাব্য সময় ও কোভিড প্রটোকলের মোটামুটি একটি ধারণাও দিয়েছেন আকশাই মানসিং।

“এখানে আসার আগে একবার কোভিড পরীক্ষায় নেগেটিভ হয়ে আসতে হবে। আসার পর আরও তিন দফায় পরীক্ষা হবে। প্রটোকল অনুযায়ী, ৭ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এর মধ্যে তিন দিন থাকতে হবে কক্ষেই। তৃতীয় দিনের পর দ্বিতীয় দফা কোভিড পরীক্ষায় নেগেটিভ হলে আমরা অনুশীলনের সুযোগ পাব, তবে সেটি কেবল নিজেদের মধ্যেই। ৭ দিন না হওয়া পর্যন্ত বাইরের কারও সংস্পর্শে আসা যাবে না। ৭ দিন পর আমরা বাংলাদেশের ছেলেদের সঙ্গেও নেট নেশন করতে পারব।”

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles