ডাচদের ১৪২ রানে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে চ্যাম্পিয়ন নেপাল!

বাজাজ পালসার ত্রিদেশীয় টি-টুয়ান্টি সিরিজের ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গ্রুপ পর্বে পয়েন্ট তালিকার সেরা দুই দল নেপাল ও নেদারল্যান্ডস শিরোপার লড়াইয়ে মাঠে নামে এবং গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পড়ে মালয়েশিয়া। ফাইনালে নেদারল্যান্ডসে হারিয়ে শিরোপা জিতে নেয় নেপাল।

আজ কৃতিপুরের ত্রিভুবন বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরুতে টসে জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় নেদারল্যান্ডস।

টস হেরেব্যাট করতে নেমে শুরুতে ব্যাট করতে নামে নেপাল। নেপালি দুই ওপেনার ২.১ ওভারেই তুলে ফেলে ৩০ রান। কিন্তু এরপরের বলেই আসিফ শেখকে আউট করেন ফিলিপে বোয়সেভেইন ডাচদের পক্ষে প্রথম সাফল্য এনে দেন৷ ৮ বলে ১ চার, ২ ছয়ে ১৬ রান করেন আসিফ৷

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে কুশাল ভুর্তেল ও জ্ঞানেন্দ্র মিলে ঝড়ো গতিতে রান তোলা বজায় রাখে। কিন্তু ৯.৩ ওভাবে নেপাল শিবিরে আবারও আঘাত হানেন ফিলিপ। এবার জ্ঞানেন্দ্রকে ফেরান তিনি৷ আউট হওয়ার আগে জ্ঞানেন্দ্র খেলেন ৩ চার, ২ ছয়ের সাহায্য ১৯ বলে ৩৩ রানের ইনিংস।

এরপর কুশাল ভুর্তেল ও কুশাল মাল্লা মিলে আরও একটি বড় জুটি গড়েন। ভুর্তেল আউট হওয়ার আগে ৫৩ বলে ৭৮ রানের ইনিংস খেলেন, যেখানে ৮ ছিল চার ও ৩ ছয়ের মার। এছাড়া কুশাল মাল্লা অপরাজিত ২৪ বলে ৫০ এবং দ্বিপেন্দ্র সিং আরে অপরাজিত ১৮ বলে ৪৬ রান করেন।পুরো ২০ ওভার খেলে নেপাল ৩ উইকেট হারিয়ে ২৩৮ রানের পুঁজি পায়।

নেদারল্যান্ডসের বোলাররা নিয়ন্ত্রিত বোলিং করতে ব্যর্থ হয়। কিন্তু তবুও ফিলিপ ৪ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে ২ টি উইকেট নেন৷ এছাড়াও সেবাস্তিয়ান ২৮ রানে ১ উইকেট নেন।

২৩৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরু থেকেই সুবিধা করতে পারে নি ডাচরা৷ দলীয় ১০ রানে ভিসের উইকেট হারায় তারা। ব্যক্তিগত ২ রান নিয়ে রান আউটে কাঁটা পড়েন তিনি। এরপর চতুর্থ ওভারের শেষ বলে ৭ রান করে কামাল সিংয়ের বলে ক্যাচ আউট হয়ে বিদায় নেন।


দলীয় ৩৩ রানে বাস ডি লিডেও রান আউটে কাঁটা পড়েন। তারা নেপালের বোলারদের বিপক্ষে বড় কোনো জুটি গড়ে তুলতে পারে নি৷ মাত্র তিন জন ডাচ ব্যাটসম্যান করেছেন দুই অঙ্কের ঘরে রান। ম্যাক্স ওডো ২০ রান, পিটার সিলার ১৩ রান করেন। এছাড়া শেষ দিকে সেবাস্তিয়ান ২৬ রান করলেও তা জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিল না৷

নেদারল্যান্ডসের ৮ জন ব্যাটসম্যানের রান ই ০-৯ এর মধ্যে। ফলে ১৭.২ বলে ৯৬ রানে অলআউট হয়ে যায় ডাচরা এবং ১৪২ রানের জয় পায় নেপাল। এরই সাথে ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা ঘরে তুলল তারা।

ওদিকে নেপালের পক্ষে করন কেসি ১১ রানে ৩ টি, কামাল সিং ২২ রানে ২ টি, লামিচানে ২৬ রানে ২ টি উইকেট লাভ করেন৷ ভোরা ২০ রানে পান ১ উইকেট।

ফাইনালে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার পেয়েছেন নেপালের করন কেসি এবং টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক কুশাল ভুর্তেলের হাতে উঠেছে টুর্নামেন্ট সেরার পুরষ্কার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

নেপাল / ( ওভার)
ভুর্তেল ৭৮ (৫৩), আসিফ ১৮ (৮) , জ্ঞানেন্দ্র ৪৩ (১৯) , দ্বিপেন্দ্র ৪৬* (১৮) , কুশাল মাল্লা ৫০* (২৪)

সিলার ০/১৪, বাস ডি লিডে ০/৫৪ , কিংমা ০/৪৯, পল ভ্যান মেকেরেন ০/৪৬, সেবাস্তিয়ান ১/২৮, ফিলিপ ২/৪৩

নেদারল্যান্ড ৯৬/১০ ( ১৭.২ ওভার)
ম্যাক্স ওডো ২০ (১৯), ভিসে ২ (৫) , বেন কুপার ৭ (৫) , সিলার ১৩ ( ২), দ্য লিডে ১ (৩), এডওয়ার্ড ৫ (৬), সেবাস্তিয়ান ২৬* (২৭), ফিলিপ ৭ (১২), মেকেরেন ৫ (৪), কিংমা ৪ (৯)

কেসি ৩/১১,লামিচানে ২/২৬, কামাল সিং ২/২২, ভোরা ১/২০, কামি ০/১৬

তানবীর রহমান
আসসালামু আলাইকুম, আমি তানবীর রহমান। বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যায়নরত একজন শিক্ষার্থী। পাশাপাশি ক্রিকেটসহ ক্রীড়া জগত এবং বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখি করি৷

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles