১৪৫ রানের টার্গেট দিয়েছে প্রোটিয়ারা

আসিফ আবদুল্লাহ

সেঞ্চুরিয়নে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ভালো সূচনা করেছিল আফ্রিকানরা। সিরিজ বাচানোর লড়াইয়ে পাওয়ার প্লেতে কোন উইকেট না হারিয়ে পুরো ফায়দা তুলে নিতে চেয়েছিল প্রোটিয়ারা। তাই ধীরস্থির ভাবেই শুরু করেন জানেমান মালান ও এইডেন মার্করাম। ৫ বলে ১১ রান করে মার্করাম ফিরলেও পাওয়ার প্লেতে ৫৩ রান জমা করে আফ্রিকানরা। দ্বিতীয় উইকেটে মালান জুটি গড়েন ডুসেনের সাথে। ৩২ বলে ৫০ রান তুলে দেয় এই জুটি। মালানের বিদায়ে শেষ পর্যন্ত এই জুটি ভাংগে ৫৭ রানে। ফাহিম আশরাফের শিকারে পরিনত হওয়ার আগে মালান করেন ২৮ বলে ৩৩ রান। অধিনায়ক ক্লাসেন এই ম্যাচে ব্যর্থ হন আরেকবার। ১২ বলে ৯ রান করতে সমর্থ হন তিনি। দলীয় ১০৯ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি।

ক্লাসেনের বিদায়ের পরেই পথ হারায় প্রোটিয়ারা। ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন মূলত হাসান আলি ও ফাহিম আশরাফ। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে আফ্রিকানরা। এক ঝড়ে সাউথ আফ্রিকার সাজানো বাগান লন্ড ভন্ড হয়ে যায়। ৩ উইকেটে ১০৯ রান থেকে ৭ উইকেটে ১২২ রানে পরিনত হয় আফ্রিকানদের স্কোর। ৩৬ বলে ৫২ করে ফেরেন ডুসেন। দলের আর কেউ দুই অংকের ঘরে যেতে না পারায় মাত্র ১৪৪ রানে অল আউট হয় প্রোটিয়ারা। ৩ টি করে উইকেট পান হাসান আলি ও ফাহিম আশরাফ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

সাউথ আফ্রিকা (ব্যাটিং) : ১৪৪/১০ (১৯.৩)
ডুসেন ৫২, মালান ৩৩, মার্করাম ১১, ক্লাসেন ৯

পাকিস্তান (বোলিং) :
শাহীন আফ্রিদি ১৯/১, নাওয়াজ ৪০/১, হারিস রউফ ১৮/২, হাসান আলি ৪০/৩, ফাহিম আশরাফ ১৭/৩

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles